কিভাবে qr কোড বানানো যায়| How to make qr code

বর্তমানে আমরা অনেক জায়গায় কিউআর কোড দেখতে পাই, টেকনোলজি উন্নত হওয়ার সাথে সাথে কিউআর কোড (qr code) এর ব্যবহার বেড়েছে। বর্তমানে অনেক গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় আমরা কিউআর কোড এর ব্যবহার দেখতে পাই। উদাহরণস্বরূপঃ আমরা বিকাশের দোকানে ক্যাশ আউট করতে গেলে বিকাশ অ্যাপস এর মাধ্যমে কিউআর কোড স্ক্যান করে নাম্বার টাইপ না করেই ক্যাশ আউট করতে পারি। কিউআর কোড (qr code) কমবেশি আমরা সকলেই চিনি, কিন্তু qr কোড কিভাবে তৈরি করা যায় এবং কিভাবে কাজ করে সেটা নিয়ে হয়তো আপনাদের মনে প্রশ্ন জেগেছে। আজকের পোস্টে আপনাদের দেখাবো কিভাবে qr কোড বানানো যায়

কিভাবে qr কোড বানানো যায়| How to make qr code

কিউআর কোড কি এবং কিভাবে কাজ করে

কিউআর কোড একজন জাপানি আবিষ্কার করে, যার নাম হচ্ছেঃ ডেনসো ওয়েব।  কিউআর কোড আবিষ্কার এবং এর ব্যবহারের ফলে আমাদের সময় সাশ্রয় হয়েছে এবং আধুনিক জীবন কিছুটা সহজ হয়েছে।


এর মাধ্যমে অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য স্টোর করে রাখা যায় এবং এটি একটি মেশিন ল্যাঙ্গুয়েজে থাকে যা স্ক্যান করা ছাড়া সাধারণ মানুষের চোখ দিয়ে দেখে বোঝা সম্ভব নয়। যদি আপনি লেখা-কে qr code এ রূপান্তর করেন তাহলে সর্বোচ্চ ৭০৮৯ টি শব্দ পর্যন্ত স্টোর করতে পারবেন।

ছোট্ট একটি স্ক্যানার কোডের মাধ্যমে এতগুলো শব্দ স্টোর করে রাখা সম্ভব। আর এজন্যই প্রযুক্তির সাথে তাল মিলিয়ে চলার জন্য বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান গুলো এবং গুরুত্বপূর্ণ জায়গা গুলোতে কিভাবে স্ক্যানার এর ব্যবহার বৃদ্ধি পেয়েছে।


সাধারণত টেক্সট, লোকেশান, ইউআরএল, বিজনেস কার্ড সহ আরো অনেক গুরুত্বপূর্ণ তথ্য qr code এ রূপান্তর করার সম্ভব। মোবাইলের ক্যামেরা দিয়ে স্ক্যান করার সাথে সাথেই আপনি কিউআর কোড এর সকল তথ্য পেয়ে যাবেন।

কিউআর কোড বানানোর উপায়

বর্তমানে qr code বানানোর অনেক সফটওয়্যার এবং টুলস পাওয়া যায়। আজ আমি আপনাদের এমন একটি পদ্ধতি দেখাবো যার মাধ্যমে আপনারা ফোন, ল্যাপটপ অথবা যেকোন স্মার্ট ডিভাইস এর মাধ্যমে কাজটি খুব সহজেই করতে পারবেন। এই টুলস এর মধ্যে সাধারণ অ্যাপস এর চেয়ে বেশি পারবেন অর্থাৎ আপনি অনেক ক্যাটাগরির তথ্য-কে  কিউ আর স্ক্যানার এ কনভার্ট করতে পারবেন।


তো আর কথা বাড়াবো না এখন আমরা কিউআর কোড বানানোর প্রসেস গুলো step-by-step দেখে নেব।

Step 1

অনলাইন থেকে কোনো অ্যাপস ইনস্টল করার ঝামেলা ছাড়াই কিউআর কোড তৈরি করতে চাইলে আপনি গুগোল এ গিয়ে “QR code generator” লিখে সার্চ করতে পারেন। অথবা আপনি চাইলে এই লিংকে ক্লিক করে কিউআর কোড জেনারেট করতে পারেন। এটি কোনো স্পন্সর না, টুলসটিতে অনেক ফিচার পাওয়া যায় তাই আপনাদের সাজেশন করলাম।

Step 2

কিভাবে qr কোড বানানো যায়| How to make qr code

এই ওয়েবসাইটের ঢোকার পরে আপনি ”Generate QR codes” লেখা বাটনে ক্লিক করবেন।

Step 3

কিভাবে qr কোড বানানো যায়| How to make qr code

এরপরে আপনার সামনে নতুন একটি পেইজ ওপেন হবে, এখানে আপনি অনেকগুলো ক্যাটাগরি দেখতে পারবেন। আপনি যে ধরনের তথ্য কিউ আর স্ক্যানার-এ কনভার্ট করতে চান সেটি সিলেক্ট করবেন।

Step 4

কিভাবে qr কোড বানানো যায়| How to make qr code

এরপরে একটু নিচের দিকে দেখবেন আপনার লেখা বা তথ্যগুলো দেয়ার জন্য একটি খালি বক্স আছে। এখানে আপনার প্রয়োজনীয় text গুলো বসাবেন।


আপনি কাস্টমাইজের আরও কয়েকটি অপশন দেখতে পাবেন এখান থেকে আপনি কালার, ব্রান্ড, সাইজ, কোয়ালিটি সহ আরো কিছু অপশন পাবেন। আপনার পছন্দমত এগুলো কে আপনি পরিবর্তন করতে পারেন। আর প্রয়োজন মনে না করলে ডিফল্ট ভাবে যে রকম আছে সে রকম রাখতে পারেন। 

Step 5

কিভাবে qr কোড বানানো যায়| How to make qr code

অবশেষে ডাউনলোড বাটনে ক্লিক করে, আপনি যে ফরমেটে ডাউনলোড করতে চান সেটার উপরে ক্লিক করার সাথে সাথে ফাইলটি আপনার ডিভাইসে save হয়ে যাবে।


আপনি চাইলে বামপাশের Print বাটনে ক্লিক করে এটিকে প্রিন্ট করতে পারেন। তবে ইমেজ আকারে ডাউনলোড করলেই ভালো হবে।

আরো পড়ুনঃ


কিউআর কোড বানানোর কাজ এতোটুকুই, এটি ঠিকঠাক ভাবে কাজ করে কিনা অথবা ঠিকঠাক ভাবে তৈরি হয়েছে কিনা সেটা চেক করার জন্য আপনি এই লিংকে গিয়ে আপনার ইমেজটা আপলোড করে চেক করতে পারেন। অথবা আপনি চাইলে আপনার ফোনের স্ক্যানার দিয়ে বা গুগল প্লে স্টোর থেকে বারকোড স্ক্যানার এর যেকোনো সফটওয়্যার ইনস্টল করে চেক করতে পারেন।


কিউআর (qr code) কোড বানানোর বিষয় নিয়ে আমাদের আজকের পোস্ট ছিলো এতোটুকুই। আশাকরি আপনাদের ভাল লেগেছে যদি কোথাও ঘুরতে সমস্যা হলে কমেন্ট করে জানাতে পারেন, আর এতক্ষন আমাদের সাথে থাকার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ

Next Post Previous Post
1 Comments
  • Bongo Tutor
    Bongo Tutor ২৭ আগস্ট, ২০২২ এ ১১:৫৯ AM

    ধন্যবাদ এমন তথ্যবহুল আর্টিকেল শেয়ার করার জন্য। অনেক উপকৃত হলাম।

Add Comment
comment url