নগদ একাউন্টের সুবিধা ২০২১

বাংলাদেশের যতগুলো মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট রয়েছে এর মধ্যে নগদ একাউন্টের সুবিধা অন্য সব মোবাইল ব্যাংকিং গুলোর চেয়ে বেশি। তাই স্বাভাবিক ভাবেই নগদ এর গ্রাহক দ্রুত বৃদ্ধি পেয়েছে দিনে দিনে নগদ একাউন্ট এর গ্রাহক আরও বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাছাড়াও নগদ ডাক বিভাগ দ্বারা পরিচালিত তাই সাধারণ মানুষের কাছে টাকা লেনদেনের এটি একটি বিশ্বস্ত মাধ্যম। নগদ মোবাইল ব্যাংকিং দ্বারা কোনো ভাবে প্রতারিত হওয়ার সম্ভাবনা নেই কারণ এটি বাংলাদেশ সরকার দ্বারা পরিচালিত ডাক বিভাগের নিয়ন্ত্রণে।

নগদ একাউন্টের সুবিধা

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং অল্প সময় ভিতরে বিশ্বস্ততার সাথে লেনদেনের মাধ্যমে অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং এর চেয়ে বেশি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। শুধু বিশ্বস্ততাই নয় অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং এর চেয়ে বেশি সুযোগ-সুবিধা দেয়ার কারণে সকলের কাছে নগদ একাউন্ট জনপ্রিয়। আজ এই পোস্টে আমি আপনাদের সাথে নগদ একাউন্টের সুবিধা গুলো নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব।

নগদ একাউন্টের সুবিধা


  • ক্যাশ আউট
  • ক্যাশ ইন
  • সেন্ড মানি
  • মোবাইল রিচার্জ
  • বিল পে
  • ইসলামিক অ্যাপ
  • অ্যাড মানি
  • পেমেন্ট

নগদ একাউন্টের ক্যাশ আউট সুবিধা

বর্তমান সময়ে অন্যান্য সকল মোবাইল ব্যাংকিং এর চেয়ে কম খরচে নগদ একাউন্ট থেকে করা যায়। বিকাশ, রকেট, শিওর ক্যাশ এর মতো অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট থেকে ক্যাশ আউট করতে সাধারণত ১৮-২০ টাকা খরচ হয়।

কিন্তু নগদ একাউন্ট থেকে ক্যাশ আউট খরচ অনেক কম, মোবাইল অ্যাপ থেকে প্রতি হাজারে ক্যাশ আউট খরচ ৯.৯৯ টাকা (ভ্যাট ছাড়া) এবং ভ্যাট সহ ক্যাশ আউট খরচ ক্যাশ আউট খরচ প্রতি হাজারে ১১.৪৯ টাকা।

আর USSD কোড ডায়েলের মাধ্যমে প্রতি হাজারে ক্যাশ আউট খরচ ১২.৯৯ টাকা (ভ্যাট ছাড়া) এবং ভ্যাট সহ ক্যাশ আউট খরচ ক্যাশ আউট (Cash out) খরচ প্রতি হাজারে ১৪.৯৪ টাকা। আপনাদের নগদ অ্যাপ ব্যবহার করে ক্যাশ আউট করলে কয়েক % কম খরচে ক্যাশ আউট করা যায়।

নগদ একাউন্টের মাধ্যমে আপনি টাকা লেনদেনের সময় মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করে ক্যাশ অন করার চেষ্টা করবেন, তাহলে আপনি USSD দিয়ে টাকা লেনদেন করলে যে খরচ হবে তারচেয়ে কম খরচে ক্যাশ আউট করতে পারবেন।

এছাড়াও অন্যান্য মোবাইলের চেয়ে বেশি এমাউন্ট একসাথে ক্যাশ আউট করতে পারবেন। আপনার হয়তো জানেন বাংলাদেশের সকল মোবাইল ব্যাংকিং এরচেয়ে নগদ মোবাইল ব্যাংকিং এ বেশি পরিমাণে টাকা ক্যাশ আউট করা যায়। আপনারা প্রতিমাসে ১,৫০,০০০ টাকা পর্যন্ত এজেন্ট নাম্বারে ক্যাশ আউট করতে পারবেন।


কিন্তু বাংলাদেশের অন্য কোন মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট এর মাধ্যমে আপনি এত পরিমানে টাকা ১ মাসে ক্যাশ আউট করতে পারবেন না। এছাড়াও নগদ একাউন্টের মাধ্যমে আপনি প্রতিদিন 5 টি ট্রানজেকশন এর মাধ্যমে 25 হাজার টাকা পর্যন্ত ক্যাশ আউট করতে পারবেন। আশা করি এবার আপনি অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং এরচেয়ে এটি ক্যাশ আউট এর ক্ষেত্রে কতটা বেশি সুবিধা দেয় সেটি বুঝতে পেরেছেন।

নগদ একাউন্টের ক্যাশ ইন সুবিধা

নগদ একাউন্টে ক্যাশ ইন সম্পূর্ণ চার্জ সম্পূর্ণ ফ্রি, অর্থাৎ ক্যাশ ইন করার জন্য বাড়তি কোনো কাজ দিতে হয়না। ক্যাশ আউট এর মতই ক্যাশ ইন করার ক্ষেত্রেও নগদ মোবাইল ব্যাংকিং বাংলাদেশের অন্যান্য সকল মোবাইল ব্যাংকিং এর চেয়ে বেশি সুবিধা প্রদান করে।

নগদ একাউন্টের মাধ্যমে আপনি প্রতিদিন 5 টি ট্রানজেকশন এর মাধ্যমে ৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত ক্যাশ ইন করতে পারবেন। আর প্রতিমাসে আপনি ২৫ টি ইনজেকশনের মাধ্যমে 2 লক্ষ টাকা পর্যন্ত ক্যাশ ইন করতে পারবেন

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে আপনি সর্বনিম্ন 50 টাকা এবং ইনজেকশনে সর্বোচ্চ 30 হাজার টাকা পর্যন্ত ক্যাশ ইন করতে পারবেন। বাংলাদেশের কোনো মোবাইল ব্যাংকিং সেবা এখনো ক্যাশ ইন (Cash in) এর ক্ষেত্রে এতটা সুবিধা দিচ্ছে না।

নগদ একাউন্টের সেন্ড মানি সুবিধা

নগদ মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে আপনি প্রতি ট্রানজেকশনে সর্বনিম্ন 10 টাকা এবং সর্বোচ্চ 25000 টাকা পর্যন্ত সেন্ড মানি (Send money) করতে পারবেন।

মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করে আপনি সম্পূর্ণ ফ্রিতে সেন্ড মানি করতে পারবেন। তবে USSD এর মাধ্যমে প্রতি ট্রানজেকশনে ৪.৩৫ টাকা (ভ্যাট ছাড়া) এবং ভ্যাট সহ ৫ টাকা চার্জ কাটে।

আপনি প্রতিদিন 50 বারে সর্বোচ্চ 25 হাজার টাকা পর্যন্ত Send money করতে পারবেন। এবং আপনি প্রতি মাসে ১০০ বারে ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত সেন্ড মানি করতে পারবেন।

নগদ একাউন্টের মোবাইল রিচার্জ সুবিধা

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে আপনি বাংলাদেশের সকল মোবাইল অপারেটর এর সিম এ রিচার্জ করতে পারবেন। প্রতি ট্রানজেকশনে আপনি সর্বনিম্ন 10 টাকা এবং সর্বোচ্চ ১ হাজার টাকা পর্যন্ত মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন।

মোবাইল রিচার্জ আপনি অ্যাপ থেকে করেন বা USSD থেকে যেভাবেই হোক কোন বাড়িতে চার্জ নেই, অর্থাৎ সম্পূর্ণ ফ্রি। যদিও বাংলাদেশের সকল মোবাইল ব্যাংকিং দিয়ে কোনো রকম বাড়তি চার্জ ছাড়াই মোবাইল রিচার্জ করা যায়।

দৈনিক 50 বারে সর্বোচ্চ 10 হাজার টাকা পর্যন্ত মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন। আর আপনি ১৫০০ বারে সর্বোচ্চ ১ লক্ষ টাকা পর্যন্ত মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন।

নগদ একাউন্টের মোবাইল বিল পে সুবিধা

নগদ মোবাইল ব্যাংকিং বিল-পে ফিচারটির মাধ্যমে সকল গ্রাহকদের অনেক সুযোগ সুবিধা দিয়ে থাকে। বিল পে ফিচারটির মাধ্যমে সাধারণত গ্যাস বিল, বিদ্যুৎ বিল, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ফি সহ বিভিন্ন রকমের বিল পে করা যায়। সকল গ্রাহকের কথা চিন্তা করে নগদ মোবাইল ব্যাংকিং বিল পে অপশনটি সহজ এবং সাধারন রেখেছে যাতে যে কেউই খুব সহজেই যেকোনো বিল পে করতে পারে।

নগদ একাউন্টের ইসলামিক অ্যাপ সুবিধা

ডিজিটাল লেনদেনের জন্য ’নগদ’ মুসলমান ভাই বোনদের জন্য রেখেছে ইসলামিক অ্যাপ। যারা ইসলামিক জীবন আচরণ মেনে চলে এবং ইসলামিক বিধি নিষেধ গুলো সম্পর্কে সচেতন তাদের জন্য নগদ মোবাইল ব্যাংকিং এর ইসলামিক অ্যাপ টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

এজন্য রেগুলার অ্যাকাউন্টে থাকা অবস্থায় ‘টগোল’ ব্যবহার করে সহজেই  ইসলামিক সংস্করণে পরিবর্তন করে নেয়া যায়। আর নগদ মোবাইল ব্যাংকিং এর এই একাউন্টে জন্য কোন মুনাফা প্রযোজ্য হবে না।

আরও পড়ুন... কোন মোবাইল সবচেয়ে ভালো ২০২১

নগদ একাউন্টের অ্যাড মানি সুবিধা

কার্ড থেকে টাকা আনার জন্য নগদ একাউন্টে রয়েছে অ্যাড মানি নামক ফিচার। তাই আপনার একাউন্ট-এর ব্যালেন্স শেষ হয়ে গেলে জরুরি প্রয়োজনে কার্ড এর মাধ্যমে নগদ একাউন্টে টাকা আনতে পারবেন

অ্যাড মানি অপশনের মাধ্যমে যেকোনো ব্যাংকের ভিসা এবং মাস্টার কার্ডের মাধ্যমে নগদ একাউন্টে টাকা আনতে পারবেন তাও কোন প্রকার চার্জ ছাড়াই। ভিসা  এবং মাস্টার কার্ডের মাধ্যমে আপনি দৈনিক ৫ বারে এ সর্বোচ্চ ৩০ হাজার টাকা পর্যন্ত আনতে পারবেন। এছাড়াও আপনি মাসে ২৫ বারে সর্বোচ্চ ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ’অ্যাড মানি’ করতে পারবেন।

ভিসা এবং মাস্টার কার্ড ছাড়াও আপনি ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে আপনার নগদে টাকা আনতে পারবেন। ব্যাংক থেকে আপনার নগদ একাউন্টে প্রতিদিন সর্বনিম্ন 50 টাকা করে ৫ বারে 30 হাজার টাকা পর্যন্ত ’অ্যাড মানি’ করতে পারবেন। এবং প্রতিমাসে আপনি  প্রতি 25 বারে সর্বোচ্চ 2 লক্ষ টাকা পর্যন্ত আনতে পারবেন।

নগদ একাউন্টের পেমেন্ট সুবিধা

ডিজিটাল ভাবে পেমেন্ট করার জন্য নগদে রয়েছে পেমেন্ট নামক ফিচার, এর মাধ্যমে আপনি বিভিন্ন সুপার শপ, রেস্তোঁরা, ফার্মেসি এবং ই-কর্মাস সাইটগুলোতে সহজেই পেমেন্ট করতে পারবেন

নগদ একাউন্টের সুবিধা ২০২১ সালে আগের থেকে বৃদ্ধি করেছে এবং কিছু সুযোগ-সুবিধা সীমিত করে দিয়েছে। তাই আপনারা ‘নগদ’ এর সুযোগ-সুবিধা বা নগদ সংক্রান্ত অন্য কোন তথ্য জানতে চাইলে আমাদের কমেন্ট করে জানাতে পারেন।


Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url